ব্যাকরণ কাকে বলে? ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা আলোচনা কর।

ব্যাকরণের সংক্ষিপ্ত আলোচনা

ব্যাকরণ কাকে বলে? ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা আলোচনা কর।

ব্যাকরণ : ' ব্যাকরণ ' শব্দটি মূলত সংস্কৃত শব্দ । ' ব্যাকরণ ' ( বি + আ + কৃ + অন ) শব্দের ব্যুৎপত্তিগত অর্থ ' বিশ্লেষণ । ' ভাষার বিশ্লেষণ করাই ব্যাকরণের কাজ । অর্থাৎ , যে শাস্ত্রে কোনো ভাষার বিভিন্ন উপাদানের প্রকৃতি ও স্বরূপ বিচারবিশ্লেষণ করা হয় এবং বিভিন্ন উপাদানের সম্পর্ক নির্ণয় ও প্রয়োগবিধি বিশদভাবে আলোচনা হয় তাকে ব্যাকরণ বলে ।

ড . সুকুমার সেন ও পণ্ডিত হরনাথ ঘোষের মতে , “ যে গ্রন্থে ভাষার বিচার ও বিশ্লেষণ সংরক্ষণ করা হয় , তাই ব্যাকরণ । ”

ড . সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতে , " যে বিদ্যার দ্বারা কোনো ভাষাকে বিশ্লেষণ করিয়া তাহার স্বরূপটি আলোচিত হয় , এবং সেই ভাষার পঠনে ও লিখনে এবং তাহাতে কথোপকথনে শুদ্ধরূপে তাহার প্রয়োগ করা যায় সেই বিদ্যাকে সেই ভাষার ব্যাকরণ বলে । "

ড . মুহম্মদ এনামুল হকের মতে , “ যে শাস্ত্রের দ্বারা ভাষাকে বিশ্লেষণ করে এর বিবিধ অংশের পারস্পরিক সম্বন্ধ নির্ণয় করা যায় এবং ভাষা রচনাকালে আবশ্যকমতো সেই নির্ণীত তত্ত্ব ও তথ্য প্রয়োগ সম্ভবপর হয়ে উঠে , তার নাম ব্যাকরণ । ”

মুনীর চৌধুরী ও মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরীর মতে , “ যে শাস্ত্রে কোনো ভাষার বিভিন্ন উপাদানের প্রকৃতি ও স্বরূপের বিচারবিশ্লেষণ করা হয় এবং বিভিন্ন উপাদানের সম্পর্ক নির্ণয় ও প্রয়োগবিধি বিশদভাবে আলোচিত হয় , তাকে ব্যাকরণ বলে । "

মনীষী ডি . এইচ . সুইট ( D. H. Sweet ) বলেন , " Grammar is the practical analysis of a language , its anatomy . " সুতরাং , যে শাস্ত্রে বাংলা ভাষার স্বরূপ ও প্রকৃতির বিচার ও বিশ্লেষণ আছে এবং যে শাস্ত্রে জ্ঞান থাকলে বাংলা ভাষা শুদ্ধরূপে বলতে , লিখতে ও শিখতে পারা যায় তাকে বাংলা ভাষার ব্যাকরণ বলে ।

ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা

ভাষার জন্ম আগে আর ব্যাকরণের সৃষ্টি হয়েছে পরে । ভাষাকে আশ্রয় করেই ব্যাকরণের উৎপত্তি , কিন্তু ব্যাকরণের ঋণ স্বীকার করে ভাষার জন্ম হয় নি । ভাষাকে বাদ দিলে ব্যাকরণের অস্তিত্বই থাকে না । অপরদিকে , বহমান ভাষা অনেক সময়ই ব্যাকরণের নিয়মকানুনকে অস্বীকার বা অতিক্রম করে । ব্যাকরণ এ অতিক্রমকে মেনে নেয় । ব্যাকরণগত ভুল অথচ ভাষায় প্রচলিত বিষয় যেকোনো ভাষাতেই প্রচুর পরিমাণে রয়েছে । কাজেই দেখা যাচ্ছে , ব্যাকরণ ভাষাকে নির্মাণ ও নিয়ন্ত্রণ কোনোটাই করে না । তাহলে কি ব্যাকরণ পাঠের কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই ? না , একথা বলা যাবে না । বরং ব্যাকরণ পাঠ যে জরুরি একথা জোর দিয়েই বলা যায় । কেননা , ব্যাকরণ পাঠ ভাষার শুদ্ধ ব্যবহারকে নিশ্চিত করে । ব্যাকরণের সুষ্ঠু প্রয়োগ ছাড়া নাম - কা ওয়াস্তে ভাষার ব্যবহার হলেও তার শুদ্ধ প্রয়োগ সম্ভব হয় না । এতে ভাষার ক্ষেত্রে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয় , ভাষা তার লালিত্য - সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলে । কখনও কখনও সৃষ্টি হতে পারে অর্থগত বিপর্যয় । ব্যাকরণের অনুশাসন ছাড়া সাহিত্য , মননশীলতার চর্চা এবং ভাষার প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবহার অসম্ভব হয়ে পড়ে । সুতরাং , একথা বলা যায় , ভাষাকে নিয়ন্ত্রণ বা নির্মাণ না করলেও ব্যাকরণ পাঠের গুরুত্ব অপরিসীম । নিম্নে ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আলোচনা করা হলো :

১ . ভাষার নিয়ম - কানুন জানতে : ব্যাকরণ ভাষার যাবতীয় নিয়ম কানুনের লিখিত দলিল । ব্যাকরণ ভাষার সকল নিয়ম - পদ্ধতি , স্বরূপ , প্রকৃতি বিশ্লেষণ করে । অতএব , ভাষা সম্বন্ধে কোনোদিছু জানতে হলে ব্যাকরণ পাঠ অপরিহার্য ।

২ . ভাষাগত আদর্শ বজায় রাখতে : ব্যাকরণ ছাড়া ভাষা চলতে পারে বটে কিন্তু তাতে ভাষাগত আদর্শ হতে বিচ্যুত হবার আশঙ্কা থাকে । এক্ষেত্রেও ব্যাকরণের জ্ঞান থাকা বাঞ্ছনীয় ।

৩. ভাষার সুষ্ঠু ও সার্থকভাবে প্রয়োগে : ভাষার অভ্যন্তরীণ নিয়ম - শৃঙ্খলা জানা থাকলে তাকে সুষ্ঠু ও সার্থকভাবে প্রয়োগ করা যায় । ভাষার গতিশীলতা বৃদ্ধি পায় ।

৪. সাহিত্য রচনায় : সাহিত্যের ছাত্রের জন্য ব্যাকরণ পাঠের আবশ্যকতা রয়েছে । শুধু উন্নত সাহিত্য রচনার জন্যই নয় , সাহিত্য হতে পূর্ণ রস আস্বাদন করতে হলে ভাষার বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জ্ঞান থাকা অপরিহার্য । তাই সাহিত্য - রসিকদের জন্য ব্যাকরণে জ্ঞানার্জন প্রয়োজন ।

৫ . ভাষার ভিত্তি জানতে : ভাষাকে ভিত্তি করে ব্যাকরণ শাস্ত্র রচিত হয় । অতএব , কোনো ভাষার অভ্যন্তরীণ প্রকৃতি ও বৈশিষ্ট্য অর্থাৎ ভিত্তি সম্পর্কে জানতে হলে ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

৬ . ভাষা প্রয়োগের শুদ্ধাশু নির্ণয়ে : ব্যাকরণ মাত্রই নিয়মের অধীন । এটি পাঠের মাধ্যমে ভাষার বিভিন্ন উপাদানের সুষ্ঠু ব্যবহার বিধি সম্পর্কে জ্ঞানলাভ করা যায় । এর ফলে লেখাও নির্ধারণ করা সহজতর হয়।

৭ . ভাষার সৌন্দর্য বিধানের ক্ষেত্রে : ভাষার সৌন্দর্য বিধানের বিভিন্ন রীতি - নীতি রয়েছে । যেমন- ধ্বনি , শব্দ , ছন্দ , বাক্য , অলঙ্কার , বাগ্‌ধারা প্রভৃতি । আর এগুলো সম্পর্কে জানা ও এদের যথার্থ প্রয়োগের জন্য ব্যাকরণের জ্ঞান অপরিহার্য।

সুতরাং বলা যায় , ব্যাকরণ দ্বারা চিন্তাশক্তি আচ্ছন্ন করলে ভাষা আড়ষ্ট হয়ে পড়তে পারে । সুতরাং , ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা আছে ; তাই বলে ব্যাকরণ দ্বারা ভাষাকে আড়ষ্ট করে নয়।

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
No Comment
আপনার মন্তব্য জানান
comment url