ভাব সম্প্রসারণ: মঙ্গল করিবার শক্তিই ধন , বিলাস ধন নহে

মঙ্গল করিবার শক্তিই ধন , বিলাস ধন নহে

ভাব সম্প্রসারণ: মঙ্গল করিবার শক্তিই ধন , বিলাস ধন নহে

মূলভাব : টাকা - পয়সা , গাড়ি - বাড়ি , বিলাস সামগ্রী প্রভৃতি প্রকৃত ধন নয় । মানুষের মধ্যে যে মঙ্গল করার শক্তি আছে তা - ই ধন ।

সম্প্রসারিত ভাব : অর্থ ছাড়া এই পৃথিবীতে কোনো কাজ সম্পন্ন করা যায় না । তাই বলে উপার্জিত অর্থকে বিলাসের বন্যায় ভাসিয়ে দিলে তার দ্বারা সমাজ বা জাতির যেমন কল্যাণ সাধিত হয় না , তেমনি বিপুল অর্থের পাহাড় রচনা করে শুধু কোষাগারে জমা রাখলেও সে অর্থ মূল্যহীন হয়ে পড়ে । কাজেই অত্যন্ত বিবেচনা করেই উপার্জিত অর্থকে ব্যয় করতে হয় । অর্থ উপার্জন করা যত সহজ , এর সদ্ব্যবহার করা ততো সহজ নয় । অথচ অর্থের সদ্ব্যবহারের ওপরই এর সার্থকতা নির্ভর করে । অধিকাংশ মানুষ ধনের অধিকারী হয়েই বিলাস - ব্যসন ও অপব্যয়ের স্রোতে গা ভাসিয়ে দেয় । কিন্তু এ বিলাসিতা ও অপব্যয় প্রকৃতপক্ষে তাদের কোনো মঙ্গল সাধন করে না , বরং এটা তাদেরকে অন্যায় ও পাপের পথে নিয়ে যায় । অনর্থক অপব্যয় না করে তারা পরের উপকার ও সমাজের মঙ্গলের জন্যে অর্থ ব্যয় করে ধন্য হতে পারে এবং অপার আনন্দলাভে সমর্থ হতে পারে । বিলাসিতার মাঝে শুধু গর্ব ও দাম্ভিকতা ছাড়া আর কিছুই নেই । এগুলো মানুষের মনুষ্যত্ব নষ্ট করে দিয়ে পশুত্বে পরিণত করে । তাই বৃথা বিলাসিতা ও অপব্যয়ে মগ্ন না হয়ে প্রত্যেক ধনবান ব্যক্তির উচিত পরের উপকার ও সমাজের কল্যাণে আত্মনিয়োগ করা । তাতে ধনের উপযুক্ত ব্যবহার সুনিশ্চিত হয় ও ধন উপার্জনও সার্থক হয় । কৃপণতা বা বিলাসিতা দ্বারা সমাজের গরিব - দুঃখী ও অনাথ - আঁতুড়ের কোনো মঙ্গল হয় না । এদের বঞ্চিত করে অর্থ - সম্পদ অনর্থক বিলাসিতায় ব্যয় করা বা সঞ্চয় করে রাখা কোনো সভ্য মানুষের উচিত নয় ।

মন্তব্য : যে অর্থ মানুষের কল্যাণে ব্যয়িত হয় না , সে অর্থের কোনো সার্থকতা নেই । মানব কল্যাণে ব্যয়িত সম্পদই প্রকৃত ধন ।

ভিডিও দেখুন



আরো পড়ুন:
পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
No Comment
আপনার মন্তব্য জানান
comment url